FATHER OF NATION BANGABANDHU

A BLOG OF MOKTEL HOSSAIN MUKTHI

স্বাধীনতা দিয়ে গেলাম 

http://kaziarefahmed.webs.com/
আমরা বেঁচে আছি এটাইতো আমাদের অনেক পাওয়া। যারা দেশের জন্য জীবন বিসর্জন দিলেন তাদের চেয়ে আমরাতো অনেক বেশী পেলাম, বেশী খেলাম, দেখলাম, শুনলাম এবং শুনালাম। এইতো আমাদের পূঁজি, এইতো আমাদের খেতাব উপঢৌকন প্রাপ্তি ।  এইতো আমাদের শ্বান্তনা। নাই বা পেলাম গাড়ী বাড়ী আর জৌলুসময় জীবনের স্বাদ। মহান আল্লাহ্‌ স্বাক্ষী রইলেন। স্বাক্ষী রইলো গাছ পালা, নদ নদী, পশুপাখী, বৃক্ষ তরুলতা " আমরা দেশের জন্য জীবনবাজী রেখে যুদ্ধ করে  রাজাকারদের স্বাধীনতা দিয়ে গেলাম, ওরা তার স্বাদ গ্রহণ করলো  আর আমাদের দিকে তাকালো কুৎসিতভাবে ঘৃণার চোখে। আমাদের রক্ত দিয়ে ফলানো ফসল রাজাকারের ঘরে আবার সে রাজাকার নিয়ে রাণী রঙ লীলায় মত্ত হয়ে জাতিরজনকের জন্মদিনে পান করে লাল সরাবন তহুরা। এ কষ্ট নিয়েই প্রবাসে কাটিয়ে গেলাম মানবেতরভাবে কতগূলো বসন্ত। জীবনের সবচেয়ে আনন্দের ৭টি বছরকাটলো নিরানন্দভাবে নির্বাসনে ।   
http://kaziarefahmed.webs.com/
আমরা বেঁচে আছি এটাইতো আমাদের অনেক পাওয়া। যারা দেশের জন্য জীবন বিসর্জন দিলেন তাদের চেয়ে আমরাতো অনেক বেশী পেলাম, বেশী খেলাম, দেখলাম, শুনলাম এবং শুনালাম। এইতো আমাদের পূঁজি, এইতো আমাদের খেতাব উপঢৌকন প্রাপ্তি ।  এইতো আমাদের শ্বান্তনা। নাই বা পেলাম গাড়ী বাড়ী আর জৌলুসময় জীবনের স্বাদ। মহান আল্লাহ্‌ স্বাক্ষী রইলেন। স্বাক্ষী রইলো গাছ পালা, নদ নদী, পশুপাখী, বৃক্ষ তরুলতা " আমরা দেশের জন্য জীবনবাজী রেখে যুদ্ধ করে  রাজাকারদের স্বাধীনতা দিয়ে গেলাম, ওরা তার স্বাদ গ্রহণ করলো  আর আমাদের দিকে তাকালো কুৎসিতভাবে ঘৃণার চোখে। আমাদের রক্ত দিয়ে ফলানো ফসল রাজাকারের ঘরে আবার সে রাজাকার নিয়ে রাণী রঙ লীলায় মত্ত হয়ে জাতিরজনকের জন্মদিনে পান করে লাল সরাবন তহুরা। এ কষ্ট নিয়েই প্রবাসে কাটিয়ে গেলাম মানবেতরভাবে কতগূলো বসন্ত। জীবনের সবচেয়ে আনন্দের ৭টি বছরকাটলো নিরানন্দভাবে নির্বাসনে ।   
আমরা বেঁচে আছি এটাইতো আমাদের অনেক পাওয়া। যারা দেশের জন্য জীবন বিসর্জন দিলেন তাদের চেয়ে আমরাতো অনেক বেশী পেলাম, বেশী খেলাম, দেখলাম, শুনলাম এবং শুনালাম। এইতো আমাদের পূঁজি, এইতো আমাদের খেতাব উপঢৌকন প্রাপ্তি । এইতো আমাদের শ্বান্তনা। নাই বা পেলাম গাড়ী বাড়ী আর জৌলুসময় জীবনের স্বাদ। মহান আল্লাহ্‌ স্বাক্ষী রইলেন। স্বাক্ষী রইলো গাছ পালা, নদ নদী, পশুপাখী, বৃক্ষ তরুলতা " আমরা দেশের জন্য জীবনবাজী রেখে যুদ্ধ করে রাজাকারদের স্বাধীনতা দিয়ে গেলাম, ওরা তার স্বাদ গ্রহণ করলো আর আমাদের দিকে তাকালো কুৎসিতভাবে ঘৃণার চোখে। আমাদের রক্ত দিয়ে ফলানো ফসল রাজাকারের ঘরে আবার সে রাজাকার নিয়ে রাণী রঙ লীলায় মত্ত হয়ে জাতিরজনকের জন্মদিনে পান করে লাল সরাবন তহুরা। এ কষ্ট নিয়েই প্রবাসে কাটিয়ে গেলাম মানবেতরভাবে কতগূলো বসন্ত। জীবনের সবচেয়ে আনন্দের ৭টি বছরকাটলো নিরানন্দভাবে নির্বাসনে